রোজ রবিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:১৪

শিরোনামঃ
বরিশালে ঘুরতে এসে বাসের চাপায় প্রাণ গেল তিন জনের দীর্ঘদিন বন্ধের পরে আজ খুলেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, পরিদর্শনে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসক বরিশালে ৬ ফার্মেসিকে ২৭ হাজার টাকা জরিমানা বিশেষ কায়দায় ফেনসিডিল বহন করেও শেষ রক্ষা হলো না তাদের, বিএমপি’র অভিযানে আটক ৪। দুইজন নারী ও ফেন্সিডিলসহ বরিশালে মাদক ব্যবসায়ী বুলেট গ্রেফতার কক্সবাজার জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ গ্রেফতার একজন বিএমপি’র অভিযানে ৪৫ পিস ইয়াবা সহ গ্রেফতার ০২ বরিশালে লকডাউন বাস্তবায়নে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ১ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা জরিমানা ও ৬ জনকে আটক। মীরগঞ্জ খেয়াঘাটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের প্রতিবাদ করায় যাত্রীকে মারধর- অভিযুক্ত গ্রেফতার নগদের ৮ লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের রহস্য উদঘাটন, ডিএসও নুরুল্লাহ গ্রেফতার।
নবম শ্রেণির বাংলা প্রশ্নে দুই পর্ণ তারকার নাম!

নবম শ্রেণির বাংলা প্রশ্নে দুই পর্ণ তারকার নাম!

অনলাইন ডেস্কঃ
ঢাকার রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির বাংলা প্রথম পত্রের বহু নির্বাচনী প্রশ্নপত্রে (এমসিকিউ) দুটি প্রশ্নের সম্ভাব্য উত্তরে দুই পর্নো তারকার নাম এসেছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে সমালোচনা। অনেকেই নবম শ্রেণির ওই প্রশ্নপত্র ফেসবুকে শেয়ার করেছেন। অল্প সময়ের মধ্যেই তা ভাইরাল হয়।
প্রশ্নের সম্ভাব্য উত্তরে যে পর্ণ তারকাদের নাম এসেছে তাঁরা হলেন, সানি লিওন ও মিয়া খলিফা। নবম শ্রেণির এমসিকিউয়ের ৮ নম্বর প্রশ্নে আম আটির ভেঁপু—কার রচিত? এর উত্তরে চারটি বিকল্পের একটি সানি লিওন বলে উল্লেখ করা হয়েছে। ২১ নম্বর প্রশ্নে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পিতার নাম কি? এর চারটি সম্ভাব্য উত্তরের একটি বলা হয়েছে মিয়া খলিফা।এ ছাড়া ৪ নম্বর প্রশ্নে অাছে, প্রমথ চৌধুরীর পৈতৃক নিবাস কোথায়? এখানে একটি উত্তরে বলা হয়েছে, ঢাকার ‌’বলদা’ গার্ডেন। যার প্রকৃত নাম ‘বলধা’ গার্ডেন।
প্রশ্নপত্র প্রণয়নের সঙ্গে যুক্ত রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শংকর চক্রবর্তীর যোগাযোগ করা হলে তিনি বৃহস্পতিবার রাতে মুঠোফোনে বলেন, প্রশ্নপত্র তৈরির পর তা পুনরায় না দেখে তিনি প্রেসে পাঠিয়ে দেন। পরীক্ষা হওয়ার পর তিনি দেখেন, সম্ভাব্য উত্তরে পর্ণ তারকা সানি লিওন আর মিয়া খলিফার নাম। শংকর চক্রবর্তীর দাবি, ইচ্ছাকৃতভাবে তিনি এই ভুল করেননি। স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন তিনি।
রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছেন, এটি অনিচ্ছাকৃত ভুল। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।