রোজ মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৮:৪৯

শিরোনামঃ
কক্সবাজার জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ গ্রেফতার একজন বিএমপি’র অভিযানে ৪৫ পিস ইয়াবা সহ গ্রেফতার ০২ বরিশালে লকডাউন বাস্তবায়নে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ১ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা জরিমানা ও ৬ জনকে আটক। মীরগঞ্জ খেয়াঘাটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের প্রতিবাদ করায় যাত্রীকে মারধর- অভিযুক্ত গ্রেফতার নগদের ৮ লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের রহস্য উদঘাটন, ডিএসও নুরুল্লাহ গ্রেফতার। বিএমপি’র সৌজন্যে অসহায় ও দুঃস্থদের মাঝে ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠিত মেহেন্দিগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গৃহবধূকে পিটিয়ে জখম। মতলবে দি একমি ল্যাবরেটরিজ লিঃ এর বিক্রয় প্রতিনিধির আত্মহত্যা নগরীতে করোনা প্রতিরোধ বুথের উদ্বোধন করলেন পুলিশ কমিশনার বিএমপি। বরিশালে জেলা প্রশাসন ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয়ে ৩ শতাধিক শিশুকে খাদ্য বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক
নকল চিপস কোম্পানির আবিস্কার ও কোম্পানির মালিককে ১ বছরের স্বশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত।

নকল চিপস কোম্পানির আবিস্কার ও কোম্পানির মালিককে ১ বছরের স্বশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত।

ধানসিঁড়ি নিউজঃ
আজ ২১ মে বিকেল আনুমানিক ৪ টায় জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বরিশাল এর সার্বিক নির্দেশনায় বরিশাল নগরীর পলাশপুর এলাকায় নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩ বিষয়ক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট খান মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন। এসময় পলাশপুর লিটন হাওলাদার এর কারখানায় এম হোসেন গলি ৫ নং ওয়ার্ড সিটি কর্পোরেশন এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু নামি দামী কোম্পানি নকল চিপস এবং বিভিন্ন খাবার যেমন-প্রাণ চিপস, টিফিন চিপস, হরলিকস, অলটাইম, শেফ ফুট, পাপস চিপস, শনপাপরী, বিস্ক ক্লাব, মার্যা ক্রিম, ঝিনুক চিপস, চানাচুর, মোয়া, বুট ইত্যাদি খাবার সামগ্রী উৎপাদন, প্যাকেজিং ও বাজারজাতকরণ, অস্বাস্থ্যকর নোংরা পরিবেশে, খাবারের নিম্নমান, পোড়া তেলের ব্যবহার, খাবার অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে প্রস্তুতকরণ ইত্যাদি কারণে। নিরাপত্তা খাদ্য আইন ২০১৩ এর ৩৭ ধারা মোতাবেগ কৃত অপরাধে মালিক মোঃ লিটন হাওলাদার কে ১ বছরের স্বশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয় এবং কারখানাটি সিলগালা করে দেয় হয়। এসময় প্রসিকিউশন প্রদান করেন স্যানিটেরি ইন্সপেক্টর, বরিশাল সিটি কর্পোরেশন, সৈয়দ এনামুল হক। অভিযানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ সদস্যরা। এই অভিযান জনস্বার্থে অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট।