রোজ রবিবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:২৯

শিরোনামঃ
বাবুগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তা নিহত কাশিপুর ইউনিয়নে স্মার্ট কার্ড বিতরন করা হবে আগামী ৬ ই মার্চ কলাপাড়ায় প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেয়ায় প্রেমিক যুগলের বিষপান, প্রেমিকের মৃত্যু এবং প্রেমিকা হাসপাতালে। প্রতিপক্ষকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে বিএমপি’র জালে ০৩ (তিন)জন স্বাক্ষরিত হলো বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, অর্থ মন্ত্রণালয় ও সোনালী ব্যাংক এর মধ্যে একটি ত্রি-পক্ষীয় গৃহনির্মাণ ঋণ প্রদান সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক চুক্তি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের তিন দিনের আলটিমেটাম বেসরকারী সার্ভেয়ার এসোসিয়েশন ( BNSA ) এর পক্ষ থেকে বসিক এর ৪০ কাউন্সিলর এর মাঝে ক্যালেন্ডার বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেছেন। ৪ (চার) মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানাভুক্ত দুধর্ষ পলাতক আসামী মোঃ মন্টু মোল্লা গ্রেফতার। বরিশালের নতুন বিভাগীয় কমিশনার সাইফুল হাসান বাদল বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের রামপট্টিতে বাস-এ্যাম্বুলেন্স মুখোমুখি সংঘর্ষে নবজাতক নিহত ॥ গুরুতর আহত -৬
আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, নিহত ২

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, নিহত ২

অনলাইন নিউজ: ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার কাইচাইল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার বিকালে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে দুই জন নিহত ও অন্তত ১০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
নিহতরা হলেন-রওশন মিয়া (৫২) ও তুহিন মিয়া (২২)। এ দুজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকাল সাড়ে ৬টায় তাদের মৃত্যু হয়।
আহতদের মধ্যে যাদের অবস্থা গুরুতর তারা হলেন, গোলাম মওলা (৩০), গোলাম রসুল বিপ্লব (২৫), আনিস মিয়া (২৪) ও রায়হান মিয়াকে (৬৫)।
আহতদের ৬ জনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ৪ জনকে নগরকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানায়, গত ৪ থেকে ৫ বছর ধরে এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কাইচাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ঠান্ডু মিয়ার সঙ্গে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য হানিফ মিয়া হৃদয়ের বিরোধ চলে আসছিল।
আগে একটি হত্যা মামলার কারণে হানিফ মিয়া এলাকা ছাড়া হয়ে ছিলেন। আসন্ন ঈদে তিনি এলাকায় ফিরতে চাইলে প্রতিপক্ষের লোকজন বাধা প্রদান করে। এসময় প্রতিপক্ষের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে হানিফ মিয়া ও তার গ্রুপের। এক পর্যায়ে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। গোলাগুলিতে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়।
খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।
হামলার খবর পেয়ে পুলিশ সুপারসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা হাসপাতালে ছুটে যান। ফরিদপুর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে রাখা হয়েছে।
নগরকান্দা থানার ওসি মিজানুর রহমান জানিয়েছেন, হামলার পর আসামীরা যাতে পালিয়ে যেতে না পারে সেজন্য বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোষ্ট বসানো হয়েছে।