রোজ শনিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:৪৫

শিরোনামঃ
প্রবীণ আইনজীবী রফিক-উল হক আর নেই সুলতান আহম্মেদ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন, বরিশাল শাখার যাত্রা শুরু সুস্থভাবে বাঁচতে চায় শিশু তানজিলা, প্রয়োজন বিত্তবানদের সহযোগিতা। মেহেন্দিগঞ্জে মা ইলিশ রক্ষায় অব্যাহত অভিযানে ৬৭ জেলের কারাদন্ড এবং লক্ষাধিক টাকা জরিমানা আদায় পলাশপুর কলোনীতে মহানগর গোয়েন্দা বিএমপি’র ব্লক রেইড। মাধ্যমিকে বার্ষিক পরীক্ষা হচ্ছে না, অ্যাসাইনমেন্টে মূল্যায়ণ মেহেন্দিগঞ্জে মা ইলিশ রক্ষায় ৫৯ জেলের কারাদন্ড; ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায়৷ সনাতন ধর্মালম্বীদের শারদীয় শুভেচ্ছা জানালেন হাজী মোঃ শরিফুল হক শারদীয় দুর্গা পূজা উদযাপন উপলক্ষে সদর উপজেলা ও মহানগরের পূজা মণ্ড‌পে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর অনুদান অনলাইনে নয় সরাসরি ভর্তি পরীক্ষা ঢাবিতে, স্ব স্ব বিভাগে পরীক্ষা দেয়ার বিষয়টি বিবেচনাধীন
মুন্নির মানহানি মামলা; আসিফ লিখলেন ‘আলহামদুলিল্লাহ’

মুন্নির মানহানি মামলা; আসিফ লিখলেন ‘আলহামদুলিল্লাহ’

জনপ্রিয় গায়ক আসিফ আকবরের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন তার একসময়ের সহশিল্পী গায়িকা দিনাত জাহান মুন্নি। গত ২ জুলাই রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় তিনি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলা নেওয়া হয়েছে। এর প্রতিক্রিয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসিফ লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ’।

দীর্ঘদিনের সহশিল্পীর বিরুদ্ধে কেনো এই মামলা-মোকদ্দমা? মুন্নির বক্তব্য, মানুষের পিঠ যখন দেয়ালে ঠেকে যায় তখনই সে মামলা করতে বাধ্য হয়। কয়েকদিন ধরে আমাকে নিয়ে ফেসবুকে ইঙ্গিতপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়ে যাচ্ছেন আসিফ। সেখানে তার ভক্তরা আমাকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেই যাচ্ছেন। ছেলে-মেয়ে, আত্মীয়-স্বজন নিয়ে সমাজে বসবাস করি, এভাবে চলতে থাকলে সবাই ভেবে নেবে আসিফের বক্তব্যই ঠিক! তাই পদক্ষেপ নিয়েছি। আইনের প্রতি বরাবরই শ্রদ্ধাশীল আমি। আশা করছি, সঠিক বিচার পাব।

অন্যদিকে আসিফ আকবরের কথা, কোনো ভয়ভীতি দেখিয়ে আমাকে থামানো যাবে না। তা ছাড়া মুন্নিকে নিয়ে সরাসরি কোনো স্ট্যাটাস দিইনি। তিনি কেন নিজেকে জড়িয়ে নিলেন? জেল খাটার অভিজ্ঞতা আমার আছে। তবে বিশ্বাসঘাতকদের চেহারা কেমন হয় মানুষকে সেটা দেখাতে চাই। সব প্রশ্নের উত্তর রেডি, সাক্ষীও রেখেছি সলিড। কিছু চমকও থাকছে। গতবারের মতো একচেটিয়া সুযোগ আর কেউ পাবে না।

এর আগে, গীতিকার সুরকার শিল্পী শফিক তুহিন ও প্রীতম আহমেদের করা এক মামলায় জেলে যেতে হয়েছিল ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’ খ্যাত আসিফ আকবরকে। সেই মামলা এখনো চলছে।

আসিফ-মুন্নির তিনটি দ্বৈত অ্যালবাম আছে, দু’জন প্লেব্যাক করেছেন প্রায় ১৫টি চলচ্চিত্রে। এর মধ্যে কয়েকটি গান জনপ্রিয়তাও পেয়েছে। দু’জনের এই তিক্ততা আলোচনার জন্ম দিয়েছে সংগীতাঙ্গনে।

উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কিছু শিল্পীকে বিশ্বাসঘাতক উল্লেখ করে তাদের নিন্দা করেন আসিফ। তিনি আরও লেখেন,’অনেকে বলে অমুক সুরকার তমুক গীতিকারের সাথে কাজ করিনা কেন? শেষবারের মত জবাব দিচ্ছি- আমি কাউকে না করিনি স্বেচ্ছায়, তারাই করেনি বা আর প্রোডাক্ট বানাতে পারছেনা। কোম্পানি তাদের ডাকেনা, আমার কিছু করার নেই এখানে। আমি নিজের কাজ নিয়ে ব্যস্ত, থেমে নেই। শুধু বলেছি ঐ দুই মেথর যে কোম্পানিতে কাজ করবে সেখানে কাজ করবোনা। আজ বলছি, সেই সাইকো তিন নারী শিল্পীর সাথে যারা কাজ করবেন তাদের সাথে আমি নেই। এদের নিজের একক কোন গান নেই। এরা অন্যের আলোয় শুধু জ্বলেই না, জ্বালিয়েও দেয়।’

যদিও আসিফ কারো নাম উল্লেখ করেননি তবুও এসব স্ট্যাটাসের সূত্র ধরেই এই মামলা।