রোজ বৃহস্পতিবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:০৩

ফেনীর সোনাগাজীর মাদরাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে অগ্নিদগ্ধ করে হত্যায় জড়িত থাকার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন কামরুন নাহার মনি ও জাবেদ হোসেন।

ফেনীর সোনাগাজীর মাদরাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে অগ্নিদগ্ধ করে হত্যায় জড়িত থাকার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন কামরুন নাহার মনি ও জাবেদ হোসেন।

অনলাইন ডেস্কঃ

ফেনীর সোনাগাজীর মাদরাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে অগ্নিদগ্ধ করে হত্যায় জড়িত থাকার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন কামরুন নাহার মনি ও জাবেদ হোসেন। ২০ এপ্রিল শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে রাত ৯টা ৫০ মিনিট সময় ধরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শরাফ উদ্দিন আহমেদের আদালতে এ জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়।
জবানবন্দি শেষে পিবিআইয়ের চট্টগ্রাম বিভাগে বিশেষ পুলিশ সুপার জনাব মো. ইকবাল এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বিজ্ঞ আদালতে কামরুন নাহার মনি ও জাবেদ হোসেন হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সরাসরি জড়িত ছিল বলে স্বীকার করছে। আসামীদ্বয় জবানবন্দিতে জানায়, নুসরাত জাহান রাফিকে ছাদে নিয়ে যাওয়ার পর শাহাদাত হোসেন শামীম ও নুর উদ্দিন মেঝেতে শুয়ে ফেললে মনি তার বুক চেপে ধরে ও জাবেদ হোসেন তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে দেয়।
জনাব মো. ইকবাল বলেন, আলোচিত এ মামলায় এখন পর্যন্ত ২০ জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ১৮ জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। শনিবার রানা ও মামুন নামের আরও দুজনকে আটক করা হয়েছে। রোববার তাদেরকে আদালতে তোলা হবে।