রোজ বৃহস্পতিবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৭:২০

শিরোনামঃ
এইচ টি ইমাম আর নেই বরিশালে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে পালিত চরফ্যাসন পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর নির্বাচিত হলেন সিদ্দিকুর রহমান মোক্তাদী ২য় বারের মত কাউন্সিলর নির্বাচিত হলেন মিজানুর রহমান মঞ্জু চরফ্যাসন পৌরসভার মেয়র হলেন নৌকার কান্ডারী এসএম মোরশেদ “মামলা তদন্তে অদক্ষতা, অলসতা, অমনোযোগীতা গাফিলতি, পক্ষপাতিত্ব বা অপেশাদারীত্বের অভিযোগ পেলে, কঠোর বিভাগীয় ব্যাবস্থা। ” মাসিক কল্যাণ সভায় বিএমপি কমিশনার। বাবুগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তা নিহত কাশিপুর ইউনিয়নে স্মার্ট কার্ড বিতরন করা হবে আগামী ৬ ই মার্চ কলাপাড়ায় প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেয়ায় প্রেমিক যুগলের বিষপান, প্রেমিকের মৃত্যু এবং প্রেমিকা হাসপাতালে। প্রতিপক্ষকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে বিএমপি’র জালে ০৩ (তিন)জন
মসজিদে ঢুকে কুপিয়ে হত্যা।

মসজিদে ঢুকে কুপিয়ে হত্যা।

ধানসিঁড়ি নিউজঃ
মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার আমগ্রাম ইউনিয়নের মঠবাড়ি এলাকার একটি মসজিদে মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ৮টা দিকে তারাবির নামাজ আদায় করা অবস্থায় মজিবর বেপারি (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।
নিহত মজিবর ওই এলাকার মৃত নওয়াব আলী বেপারির ছেলে। রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজাহান মিয়া’র বরাতে জানা গেছে, নিহত মজিবর বেপারির সঙ্গে তার ফুফাতো ভাই আশরাব বেপারি ও লিঙ্কন বেপারির বিরোধ ছিল। এর আগেও তাঁদের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ধারণা করা হচ্ছে এর জের ধরে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ওসি শাহজাহান মিয়া আরও জানান, ৮টার দিকে তারাবির নামাজ আদায় করতে মসজিদে প্রবেশ করেন মজিবর। এ সময় মসজিদের ভেতরে অর্ধশত মুসল্লি নামাজ আদায় করছিল। হঠাৎ কয়েকজন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মসজিদের ভেতরে প্রবেশ করেন। পরে মজিবরকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি কোপানো শুরু করেন। মজিবর দৌড়ে বাইরে চলে আসার চেষ্টা করলে মসজিদ প্রাঙ্গণে দাঁড়িয়ে থাকা সন্ত্রাসীরা তার গতিরোধ করে ফের কোপানো শুরু করে। এ সময় স্থানীয়দের মধ্যে হইচই শুরু হলে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। পরে স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় মজিবরকে রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এই ঘটনার পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে রাজৈর থানা পুলিশ। ওসি শাহজাহান মিয়া বলেন, এই সন্ত্রাসী হামলা যারা করেছে তাদের আটক করতে পুলিশ মাঠে নেমেছে। আশা করছি দ্রুত তাদের আটক করা হবে।