রোজ রবিবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৬:১৭

শিরোনামঃ
বাবুগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তা নিহত কাশিপুর ইউনিয়নে স্মার্ট কার্ড বিতরন করা হবে আগামী ৬ ই মার্চ কলাপাড়ায় প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেয়ায় প্রেমিক যুগলের বিষপান, প্রেমিকের মৃত্যু এবং প্রেমিকা হাসপাতালে। প্রতিপক্ষকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে বিএমপি’র জালে ০৩ (তিন)জন স্বাক্ষরিত হলো বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, অর্থ মন্ত্রণালয় ও সোনালী ব্যাংক এর মধ্যে একটি ত্রি-পক্ষীয় গৃহনির্মাণ ঋণ প্রদান সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক চুক্তি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের তিন দিনের আলটিমেটাম বেসরকারী সার্ভেয়ার এসোসিয়েশন ( BNSA ) এর পক্ষ থেকে বসিক এর ৪০ কাউন্সিলর এর মাঝে ক্যালেন্ডার বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেছেন। ৪ (চার) মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানাভুক্ত দুধর্ষ পলাতক আসামী মোঃ মন্টু মোল্লা গ্রেফতার। বরিশালের নতুন বিভাগীয় কমিশনার সাইফুল হাসান বাদল বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের রামপট্টিতে বাস-এ্যাম্বুলেন্স মুখোমুখি সংঘর্ষে নবজাতক নিহত ॥ গুরুতর আহত -৬
মন্ত্রী মহোদয়ের অপেক্ষায়, শিক্ষার্থীরা ভিজে যায়

মন্ত্রী মহোদয়ের অপেক্ষায়, শিক্ষার্থীরা ভিজে যায়

ছবি সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক:

পটুয়াখালীর দশমিনায় পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুকের আগমন উপলক্ষে বৃষ্টির মধ্যে সড়কের দুই পাশে স্কুলের শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী উপজেলার হাজির হাটে নদী ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শনে আসেন। এ সময় বৃষ্টির মধ্যে সড়কের দুই পাশে দশমিনা সদর ইউনিয়নের হাজিরহাট নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দশমিনায় পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে সকাল থেকে বিদ্যালয়ের নির্ধারিত পোশাক পড়ে সড়কের দুই পাশে শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে রাখেন প্রধান শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্টরা। এর মধ্যে শুরু হয় বৃষ্টি। বৃষ্টির মধ্যে শিক্ষার্থীরা উঠে আসতে চাইলেও তাদের সড়কে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী উপজেলার হাজিরহাটে নদীভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শনে আসেন।
স্থানীয় বাসিন্দা মামুন জানান, মন্ত্রী আসবেন বলে শিক্ষার্থীদের বৃষ্টিতে ভিজতে হয়েছে।
এ বিষয়ে হাজিরহাট নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীদের রাস্তায় দাঁড় করিয়ে রাখার কোনো নিয়ম নেই। বিদ্যালয় ও ভাঙন পরিদর্শন এলাকা একই স্থানে হওয়ায় শিক্ষার্থীরা সড়কে গেছে।
নির্দেশ না দিলে শিক্ষার্থীরা সড়কে সুশৃঙ্খলভাবে দাঁড়িয়ে থাকবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আজ বিদ্যালয় খোলা ছিল। শিক্ষার্থীদের সড়কে দাঁড় করিয়ে রাখার পক্ষে আমি না। আমি অসুস্থ থাকায় ঘটনার সময় বাড়ি ছিলাম।
শিক্ষার্থীরা কত সময় বৃষ্টিতে ভিজেছে- এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ হোসেন বলেন, বেশি সময় না। মন্ত্রী সাহেব আসছেন আর গেছেন ততক্ষণ। বৃষ্টি ছিল সর্বোচ্চ ৫ মিনিট।