রোজ শনিবার, ২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, রাত ১০:৫৪


শিরোনামঃ
বহুল প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরিশালে বিএমপির অভিযানে ০৪ কেজি গাজাঁসহ ১ নারী আটক বরিশালে মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় কাশিপুরের শেখ ইউনুস নিহত বরিশালে ৩৫ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক ০১ মেহেন্দিগঞ্জে ১২ কেজি গাঁজাসহ আটক ৪ বরিশালে দেড় কেজি গাঁজা সহ আটক ০১ একটি বাস্তবধর্মী জীবনের গল্প জোঁক বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজির পক্ষ থেকে সংবর্ধনা পদোন্নতিপ্রাপ্ত অতিরিক্ত ডিআইজি মো: মোকতার হোসেন পিপিএমকে বরিশালে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু,ইন্টার্ণ চিকিৎসকের ওপর হামলার অভিযোগ মেহেন্দিগঞ্জে সড়কের উপর বালু ব্যবসায়ীদের নির্মাণ করা স্প্রিট ব্রেকার যেন মরণ ফাঁদ! প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা।
আফগানদের বোলিং তোপে মুখ থুবড়ে পড়লো ভারতের ব্যাটিং লাইন

আফগানদের বোলিং তোপে মুখ থুবড়ে পড়লো ভারতের ব্যাটিং লাইন

অনলাইন ডেস্কঃ
অবশেষে বিশ্বকাপে নিজেদের খুঁজে পেল আফগানিস্তান। ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন আপকে চমকে দিলেন রশিদ-নবী-নাইবরা। পুরো ৫০ ওভার ব্যাটিং করে ৮ উইকেটে মাত্র ২২৪ রান তুলতে পেরেছে বিশ্বকাপের ফেবারিটরা।

টস জিতে ব্যাটিং বেছে নেয় ভারত। শুরু থেকেই তারা ছিল চাপে। ইনিংসের পঞ্চম ওভারেই ভয়ংকর রোহিত শর্মাকে তুলে নেয় আফগানিস্তান। মুজিব উর রহমানের দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে রোহিত বোল্ড হন ১ রানেই। ধীরে শুরু করা ভারতের বোর্ডে তখন মাত্র ৭ রান।

দ্বিতীয় উইকেটে লোকেশ রাহুলকে নিয়ে ৫৭ রানের জুটি কোহলির। দেখেশুনে খেলতে থাকা রাহুলকে (৩০) সাজঘরের পথ দেখান মোহাম্মদ নবী। ৬৪ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপেই পড়ে ভারত।

সেখান থেকে দলকে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা কোহলি আর বিজয় শঙ্করের, তৃতীয় উইকেটে তারা গড়েন ৫৮ রানের জুটি। ২৯ রান করা বিজয় শঙ্করকে এলবিডব্লিউ করে এই জুটিটি ভাঙেন রহমত শাহ।

এরপর অল্প সময়ের মধ্যেই সবচেয়ে বড় ধাক্কাটি খায় ভারত। দলের ব্যাটিং স্তম্ভ বিরাট কোহলি ৬৩ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৬৭ রান করে মোহাম্মদ নবীর শিকার হন। ১৩৫ রানে ৪ উইকেট হারায় ভারত।

পঞ্চম উইকেটে বিপদ সামলে উঠেন অভিজ্ঞ মহেন্দ্র সিং ধোনি আর কেদর যাদব। তবে হাত খুলে খেলতে পারেননি তারাও। ১৪ ওভারের জুটিতে মাত্র ৫৫ রান তুলতে পারেন এই যুগল।

অবশেষে ৪৫তম ওভারে এসে ধোনিও আউট হয়ে যান। ৫২ বলে ২৮ রানের ধীরগতির এক ইনিংস খেলা এই ব্যাটসম্যান রশিদ খানের বলে চড়াও হতে গিয়ে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে পড়েন। হার্দিক পান্ডিয়াও (৯ বলে ৭) ভয়ংকর হতে পারেননি।

এরই মধ্যে শেষ ওভারে চমক দেখান গুলবাদিন নাইব। তুলে নেন জোড়া উইকেট। মোহাম্মদ শামির (১) সঙ্গে হাফসেঞ্চুরিয়ান কেদর যাদবকেও (৬৮ বলে ৫২) আউট করেন আফগান অধিনায়ক।

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন-০১৮২২৮১৫৭৪৮