রোজ রবিবার, ৯ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৬শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:৪৮

২২ মাসেও সংস্কার হয়নি ধামুড়া বন্দরের ব্রীজটি

২২ মাসেও সংস্কার হয়নি ধামুড়া বন্দরের ব্রীজটি

উজিরপুর প্রতিনিধি: মালবাহী ট্রলারের ধাক্কায় ভেঙ্গে পড়া উজিরপুর উপজেলার ধামুড়া বন্দরের ব্রিজটি ২২ মাসেও সংস্কার না হওয়ায় চরম জনদূর্ভোগে পরেছে হাজারো মানুষ। প্রতিদিন ওই বন্দরের হাজার হাজার মানুষ পারাপার করতো ব্রীজটির উপর দিয়ে । প্রায় ২ বছর আগে ১৭ সালের ৪ জুলাই ইট বোঝাই একটি ট্রলারের ধাক্কায় ব্রীজটি মধ্যের বড় অংশ ভেঙ্গে নদীর ভিতরে পরেলে সেই থেকে ব্রীজটির উপর দিয়ে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

ধামুড়া বন্দরের প্রধান সড়কে অবস্থিত ব্রীজটি চলাচলের অনুপযোগী হওয়ায় বেশ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন ওই বন্দরের শত শত ব্যবসায়ীরা। জানাগেছে,উজিরপুর- ধামুড়া- গৌরনদী খালের উপার ধামুড়া মাছ বাজার সংলগ্ন ১২০ ফুট দীর্ঘ লম্বা লোহার তৈরী ব্রীজটি নির্মান করা হয় ।

পরবর্তিতে ২০১০ সালে ১০ লক্ষ ৯৮ হাজার টাকা ব্যয়ে ব্রিজটি সংস্কার করা হয়। ধামুড়া বন্দরের ব্যবসায়ী সেলিম বলেন, ধামুড়া বান্দরের প্রধান ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ায় বন্দরের ব্যবসায়ীদেও পড়তে হয়েছে চরম দূর্ভোগে।এছাড়াও ওই ব্রীজটি দিয়ে ৪টি ইউনিয়নের প্রায় লাখো মানুষ চলাচল করতো স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরাও পরেছে সীমাহীন দূর্ভোগে।

শোলক ইউপি চেয়ারম্যান কাজী হুমাউন কবির বলেছেন, ব্রিজটির কারনে জনসাধারন থেকে শুরু করে বন্দরের ব্যাবসায়ীরা বেশ ক্ষতিগ্রস্থ ব্রীজটি নির্মানের জন্য বেশ কয়েক বার তাগিদও দিয়েছে। উজিরপুর উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মো: ইউনুস আলী জানিয়েছেন ভেঙ্গে পরা ব্রীজটি মেরামতের জন্য টেন্ডার সম্পন্ন হয়েছে খুব দ্রুতই ধামুড়া ব্রীজটির কাজ করা হবে। উজিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ সিকদার বাচ্চু বলেছেন,ধামুড়া ব্রীজটি বেশ গুরুত্বপূর্ন দীর্ঘদিন অকেজো থাকা দুঃখজনক, তিনি বিষয়টিতে দ্রুত পদক্ষেপ নিবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।