রোজ বৃহস্পতিবার, ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৪৭

শিরোনামঃ
মির্জাগঞ্জে ৬০ হাজার কেজি নিষিদ্ধ পলিথিন জব্দ শেখ হাসিনার দূরদর্শিতায় মানুষের জীবিকা ও অর্থনীতি সচলঃ এমপি জ্যাকব কলাপাড়ায় মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহত বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র ও গাঁজা সহ পিতা-পুত্র গ্রেফতার। ইসরায়েলে ধর্মীয় উৎসবে পদদলিত হয়ে ৪৪ জনের প্রাণহানি হাসপাতাল পালানো সেই ১০ জনের ‘ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট’ পরীক্ষার উদ্যোগ নেই দিল্লির শ্মশানে দীর্ঘ লাইন, মরদেহ ছিঁড়ে খাচ্ছে কুকুর অধিক দামে তরমুজ বিক্রয় করার অপরাধে ০৬ ব্যবসায়ীকে ৯,৭০০ টাকা জরিমানা বরিশালে তরমুজের বাজার স্থিতিশীল রাখতে বিভিন্ন বাজারে মোবাইল কোর্ট অভিযানে ১৪ ব্যবসায়ীকে ১০৩০০ টাকা জরিমানা পাত্র করোনায় আক্রান্ত, পিপিই পরেই বিয়ে সারলেন কনে!
পশ্চিম বঙ্গে মমতার তৃণমূল এগিয়ে

পশ্চিম বঙ্গে মমতার তৃণমূল এগিয়ে

অনলাইন ডেস্ক:

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শুরু হয়েছে। প্রাথমিক ফল অনুযায়ী, দেশজুড়ে বড় ব্যবধানে এগিয়ে আছে ক্ষমতাসীন বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। তবে পশ্চিমবঙ্গে বরাবরের মতো আধিপত্য ধরে রেখেছে তৃণমূল কংগ্রেস। ভারতের গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গে সংখ্যাগরিষ্ঠ কেন্দ্রে জয় পেতে যাচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল।
স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শুরু হয়েছে। প্রাথমিক ফলে দেখা গেছে, ১৯৩ আসনে এগিয়ে আছে নরেন্দ্র মোদির এনডিএ জোট। আর কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোট ৬৯ আসনে এগিয়ে আছে।
তবে এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, বিজেপি জোট ৩২৮ আসনে এগিয়ে থেকে ইতিমধ্যে সরকার গঠনের মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতার আভাস পেয়ে গেছে। আর কংগ্রেস জোট ১০৮ আসন পেতে যাচ্ছে।
দেশের রাজত্ব ফের মোদির হাতে থাকলেও পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের মতো লোকসভা নির্বাচনেও আধিপত্য বজায় থাকছে তৃণমূল কংগ্রেসের। ‍যুগান্তরের কলকাতা প্রতিনিধির দেয়া তথ্যানুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গে ২৩ আসনে তৃণমূল কংগ্রেস এগিয়ে আছে। আর ৮ আসন পেয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে বিজেপি।
তবে এনডিটিভি ও আনন্দবাজার পত্রিকাসহ একাধিক গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গে মোট ৪২ আসনের মধ্যে ৩১টির ফল পাওয়া গেছে। এতে তৃণমূল কংগ্রেস এগিয়ে আছে ১৮টিতে, বিজেপি ১২টিতে এবং কংগ্রেস ১টিতে এগিয়ে আছে।
১১ এপ্রিল শুরু হয়ে গত রোববার শেষ হয় ভারতে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভার সাত ধাপের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ।
৯০ কোটির বেশি ভোটারের জন্য ৫৪২ আসনের ৯ লাখ কেন্দ্রে মোট সাত পর্বে চলে এই ভোটগ্রহণ। কোনো দলকে সরকার গঠন করতে হলে পেতে হবে ৫৪৩ আসনের মধ্যে ২৭২টি আসন।