রোজ শনিবার, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ১২:৫৯

পদ্মা সেতুর পাইল বসানোর কাজ শেষ, ২০২০ সালের ডিসেম্বরে চলতে পারে গাড়ি

পদ্মা সেতুর পাইল বসানোর কাজ শেষ, ২০২০ সালের ডিসেম্বরে চলতে পারে গাড়ি

অনলাইন ডেস্ক: নির্মাণাধীন পদ্মা সেতুর ২৬ নম্বর পিয়ারের ৭ নম্বর পাইলটি রোববার সন্ধ্যায় বসানো হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে শেষ হলো এই সেতুর পাইল বসানোর কাজ। সেতু কর্তৃপক্ষের আশা, এ বছরই পদ্মা সেতুর ২৯৪টি পাইলের ওপর ৪২টি পিয়ারের সব কটিই তৈরি হয়ে যাবে।
বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর বলেন, সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে পাইল বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। এ সময় সেতু বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
পদ্মা সেতু প্রকল্পের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে পাইল বসানোর কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। নতুন নকশা চূড়ান্ত করার পর মূল সেতুর নির্মাতা চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন কোম্পানিকে এ সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। নতুন নকশার পর এবারই প্রথম নির্ধারিত সময়ের প্রায় দুই সপ্তাহ আগে পাইল বসানোর কাজ সম্পন্ন হলো। নকশা জটিলতার কারণে এর আগে পদ্মা সেতুর কোনো কাজই সময়মতো সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি।
পদ্মা সেতু প্রকল্পের বেশ কয়েকজন প্রকৌশলীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ৪২টি পিয়ারের ওপর ৪১টি স্প্যানে গড়ে উঠবে পুরো পদ্মা সেতু।
সব মিলিয়ে ২৯৪টি পাইলে ৪২টি পিয়ারে থাকবে পদ্মা সেতু। ৪২টি পিয়ারের মধ্যে ১৪টি স্প্যান বসানোর পর পদ্মা সেতুর ২ হাজার ১০০ মিটার এখন দৃশ্যমান।
পদ্মা সেতু প্রকল্পের বিশেষজ্ঞ কমিটির প্রধান অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেন, মূল কাজ ছিল সেতুর পাইল ডাইভিং। এটি সম্পন্ন হয়েছে। এখন তো প্রকল্পের কাজ দ্রুত চলছে। জাজিরায় অনেক স্প্যান বসে গেছে। মাওয়ার কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে দূরত্ব কমে এসেছে। তাই কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে দু-এক দিনের মধ্যেই একটি করে স্প্যান পিয়ারের ওপর বসানো সম্ভব। ১৩টি পিয়ার নির্মাণকাজ শেষ হলে আশা করা যায় ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে পারবে।