রোজ বৃহস্পতিবার, ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:২৪

শিরোনামঃ
মির্জাগঞ্জে ৬০ হাজার কেজি নিষিদ্ধ পলিথিন জব্দ শেখ হাসিনার দূরদর্শিতায় মানুষের জীবিকা ও অর্থনীতি সচলঃ এমপি জ্যাকব কলাপাড়ায় মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহত বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র ও গাঁজা সহ পিতা-পুত্র গ্রেফতার। ইসরায়েলে ধর্মীয় উৎসবে পদদলিত হয়ে ৪৪ জনের প্রাণহানি হাসপাতাল পালানো সেই ১০ জনের ‘ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট’ পরীক্ষার উদ্যোগ নেই দিল্লির শ্মশানে দীর্ঘ লাইন, মরদেহ ছিঁড়ে খাচ্ছে কুকুর অধিক দামে তরমুজ বিক্রয় করার অপরাধে ০৬ ব্যবসায়ীকে ৯,৭০০ টাকা জরিমানা বরিশালে তরমুজের বাজার স্থিতিশীল রাখতে বিভিন্ন বাজারে মোবাইল কোর্ট অভিযানে ১৪ ব্যবসায়ীকে ১০৩০০ টাকা জরিমানা পাত্র করোনায় আক্রান্ত, পিপিই পরেই বিয়ে সারলেন কনে!
কিশোরী খুন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-পুলিশপ্রধানের পর বরখাস্ত শিক্ষামন্ত্রীও

কিশোরী খুন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-পুলিশপ্রধানের পর বরখাস্ত শিক্ষামন্ত্রীও

অনলাইন নিউজ ডেস্ক: রোমানিয়ায় এক কিশোরী অপহরণ করে হত্যার ঘটনায় জনতার ক্ষোভের মুখে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশপ্রধান আগেই পদ খুইয়েছেন। এরপর শিক্ষামন্ত্রীকেও বরখাস্ত করা হলো।
আলেকজান্দ্রা মাসেসানুকে (১৫) গত ১৪ জুলাই অপহরণের পর হত্যা করা হয়। দেশটির জরুরি সেবায় তিনবার ফোন করেও যথাযথ সহায়তা পায়নি মাসেসানু। তাকে হত্যার ঘটনা জানাজানি হলে দেশটিতে বিক্ষোভ শুরু হয়।
বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত সপ্তাহে এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ইকেতেরিনা আন্দ্রোনেস্কুও বলেছিলেন, ‘অপরিচিত ব্যক্তির গাড়িতে উঠতে নেই’- নিহত কিশোরী মাসেসানুকে এই শিক্ষা যথাযথভাবে দেওয়া হয়নি। তাঁর এই মন্তব্যকে একদমই ভালোভাবে নেননি দেশটির প্রধানমন্ত্রী ভিওরিকা দানচিলা। অপহরণ ও খুনের পর শিক্ষামন্ত্রীর এমন মন্তব্যকে ‘বড় ভুল’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী দানচিলা। আন্দ্রোনেস্কু ঘটনার ভয়াবহতা বুঝতে ব্যর্থ হয়েছেন, এমন মন্তব্যও করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী। এর জের ধরেই গত শুক্রবার তাঁকে বরখাস্ত করেন প্রধানমন্ত্রী। নিহত কিশোরী বা তার পরিবারকে দোষারোপ করে কোনো মন্তব্য করেননি, এমন দাবি করেছেন আন্দ্রোনেস্কু। আত্মপক্ষ সমর্থন করেও অবশ্য পার পাননি তিনি। এর আগে এই ঘটনায় বিক্ষোভের মুখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিকোলাই মোগা পদত্যাগ করেন। আর পুলিশপ্রধান আয়ন বুদাকে বরখাস্ত করা হয়।
ইউরোপের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় এই দেশটির পুলিশ বলছে, দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর দোবরোসলোভেনি থেকে গত ১৪ জুলাই বাড়ি ফেরার পথে অপরিচিত এক ব্যক্তির গাড়িতে উঠে অপহরণের শিকার হয় কিশোরী মাসেসানু। পরদিন অপহরণকারীদের জিম্মায় থেকেই পুলিশের জরুরি হটলাইনে তিনবার ফোন করে সে। পুলিশকে পুরো ঘটনা জানালেও কিশোরীটিকে উদ্ধার করতে পারেনি রোমানিয়ার পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশের ব্যর্থতার প্রতিবাদে ফুঁসে ওঠে গোটা রোমানিয়া।
এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে ৬৫ বছর বয়সী গিওর্গি দিনকাকে আটক করেছে পুলিশ। দিনকার বাড়ি থেকে কিশোরী মাসেসানুর ডিএনএ পাওয়া গেছে বলেও দাবি করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা। দিনকা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে খুনের ঘটনা স্বীকার করে নিয়েছেন বলেও জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে ১৮ বছর বয়সী আরেক কিশোরী লুইজা মেলেনকুকে হত্যার কথাও জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন তিনি। দিনকার আইনজীবী আলেকজান্দ্রু বোগদান রোমানিয়ার জাতীয় সংবাদ সংস্থাকে বলেছেন, দিনকা তাঁর দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন।