রোজ মঙ্গলবার, ১১ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:৩৫

বরিশালে তরমুজের বাজার স্থিতিশীল রাখতে বিভিন্ন বাজারে মোবাইল কোর্ট অভিযানে ১৪ ব্যবসায়ীকে ১০৩০০ টাকা জরিমানা

বরিশালে তরমুজের বাজার স্থিতিশীল রাখতে বিভিন্ন বাজারে মোবাইল কোর্ট অভিযানে ১৪ ব্যবসায়ীকে ১০৩০০ টাকা জরিমানা

মোঃ শাহাজাদা হিরাঃ বরিশালে মাহে রমজান ও অধিক তাপমাত্রাকে কেন্দ্র করে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীদের কারণে গরমের সুস্বাদু ফল তরমুজ খেটে খাওয়া মানুষের নাগালের বাইরে বিক্রি হচ্ছে। কারন হিসেবে দেখা যায় বাজারে ব্যবসায়ীরা তরমুজ কম দামে পিচ হিসেবে ক্রয় করে ক্রেতাদের নিকট অধিক দামে কেজি দরে বিক্রি করছে। প্রতি কেজি তরমুজ বিক্রি হচ্ছে ৫০/৬০ টাকা করে। এতে একটি ভালো তরমুজ ক্রেতাদের কিনতে হচ্ছে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা করে যা সাধারণ মানুষের জন্য কিনে খাওয়াটা কষ্টসাধ্য।

আজ ২৬ এপ্রিল সোমবার বিকালে বরিশাল জেলা প্রশাসন এর পক্ষ থেকে বাজার মনিটরিং এর অংশ হিসবে নগরীর বিভিন্ন বাজারে দুইটি মোবাইল কোর্ট টিম অভিযান পরিচালনা করেন। বরিশালের বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জসীম উদ্দীন হায়দার এর নির্দেশনায় এবং অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট গৌতম বাড়ৈ এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবদুল হাই ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রয়া ত্রিপুরা।

এসময় বরিশাল নগরীর পোট রোড, ফলপট্টি, জেল খানার মোড়, নতুন বাজার, নথুল্লাবাদ বাসস্ট্যান্ড, চৌমাথা বাজার, বাংলা বাজার এলাকায় মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় বাজারে অবস্থানরত ক্রেতাদের অভিযোগের ভিত্তিতে দেখা যায় তরমুজ বিক্রেতারা পিচ হিসেবে তরমুজ কিনে অধিক দামে ক্রেতাদের নিকট কেজি হিসেবে তরমুজ বিক্রি করছে। যা মোবাইল কোর্ট অভিযানে সত্যতা পাওয়া যায়।

এসময় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবদুল হাই এর নেতৃত্বে ৮ জন ব্যবসায়ীকে ৬,৪০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয় পাশাপাশি অপর একটি অভিযানে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রয়া ত্রিপুরা এর নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট অভিযানে ৬ জন ব্যবসায়ীকে ৩,৯০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। উক্ত অভিযানে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি টিম আইন-শৃংখলা রক্ষায় সহায়তা প্রদান করেন। অভিযান শেষে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট বৃন্দ বলেন, জনস্বার্থে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।