রোজ শনিবার, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ২:১৭

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এসএম ইমামুল হককে ছুটি দেওয়া হয়েছে

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এসএম ইমামুল হককে ছুটি দেওয়া হয়েছে

নিউজ ডেস্কঃ শিক্ষার্থীদের টানা আন্দোলনের মুখে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এসএম ইমামুল হককে দেড় মাসের ছুটি দেওয়া হয়েছে। রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলর এ ছুটি মঞ্জুর করেছেন বলে সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে বলা হয়।

মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সরকারি সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয় এর উপ-সচিব হাবিবুর রহমান স্বাক্ষরিত এই আদেশে বলা হয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এসএম ইমামুল হককে ব্যক্তিগত ও প্রশাসনিক প্রয়োজনে ১১ এপ্রিল থেকে ২৬ মে পর্যন্ত ছুটি দেওয়া হয়েছে।

এই সময়কালে তার অনুপস্থিতিতে ট্রেজারার এ কে এম মাহবুব হাসান নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব পালন করবেন বলে আদেশে বলা হয়।

২০১৫ সালের ২৭ মে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য হিসেবে যোগ দেন অধ্যাপক এসএম ইমামুল হক। আগামী ২৬ মে তার কার্যকালের মেয়াদ (চার বছর) শেষ হবে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের নেতা লোকমান হোসেন বলেন, ভিসির অপসারণের দাবিতে সকাল থেকে তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করছিলেন। ভিসির ছুটির খবরে সবাই আনন্দিত। পাশাপাশি মহামান্য রাষ্ট্রপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মিয়া বলেন, ভিসির অপসারণ বা বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠানোর দাবিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। শিগগিরই ক্যাম্পাসের পরিবেশ স্বাভাবিক হবে এবং শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ফিরে যাবেন।

স্বাধীনতা দিবসে শিক্ষার্থীদের বাদ দিয়ে আমন্ত্রিত অতিথিদের নিয়ে চা চক্রের আয়োজন করেন উপাচার্য এসএম ইমামুল হক। শিক্ষার্থীরা এর প্রতিবাদ জানালে উপাচার্য তাদের ‘রাজাকারের সন্তান’ বলে মন্তব্য করেন বিলে শিক্ষার্থীদের ভাষ্য।

ওইদিন (২৬ মার্চ) থেকেই ভিসির পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। পরে শিক্ষকরাও ওই আন্দোলনে যোগ দেন।