রোজ বুধবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:০৭

নারী লাঞ্ছনার অভিযোগে তদন্ত করতে গিয়ে দায়ের কোপে এএসআই আহত

নারী লাঞ্ছনার অভিযোগে তদন্ত করতে গিয়ে দায়ের কোপে এএসআই আহত

অনলাইন ডেস্কঃ নারী লাঞ্ছনার এক অভিযোগে তদন্ত করতে গিয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তির দায়ের কোপে পুলিশ কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম (৩৫) গুরুতর আহত হয়েছেন।

পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলা জয়কুল গ্রামে আজ ২৮ জুন, শুক্রবার সকাল আনুমানিক বেলা ১১ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। আহত পুলিশ কর্মকর্তা কাউখালী থানায় পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই)। প্রথমে তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। কিন্তু শরীরে একাধিক কোপের জখম থাকায় তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম হায়দার হাওলাদার। পুলিশ জানিয়েছে, প্রতিবেশী এক নারী হায়দারের বিরুদ্ধে লাঞ্ছনার অভিযোগ তোলেন। ওই অভিযোগ তদন্তে এএসআই রফিকুল ইসলাম অভিযুক্ত হায়দারের বাড়িতে গেলে এই ঘটনা ঘটে।

কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ছিদ্দিকুর রহমান সূত্রে জানা গেছে, হামলায় উক্ত এএসআই -এর বাঁ হাতের কবজির ওপরের অংশে রগ কেটে গেছে। এ ছাড়া ডান হাত, মুখমণ্ডলসহ শরীরে চারটি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

কাউখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, উপজেলার জয়কুল গ্রামের হায়দার হাওলাদারের বিরুদ্ধে প্রতিবেশী এক নারী থানায় লাঞ্ছনার অভিযোগ করেন।

আজ সকালে এএসআই রফিকুল ইসলামকে অভিযোগটি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তিনি বেলা ১১টার দিকে হায়দারের বাড়িতে যান। ঘরে ঢোকার সাথে সাথে হায়দার ধারালো দা দিয়ে রফিকুল ইসলামকে আক্রমন করে কুপিয়ে জখম করে। স্থানীয় লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় রফিকুলকে উদ্ধার করে প্রথমে কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। পরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। হায়দারকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।